পরিবারের আয়োজনেই এই বিয়েতে মত দিয়েছি: অভিনেত্রী সানাই

-আয়োজনেই-এই-বিয়েতে-মত-দিয়েছি-অভিনেত্রী-সানাই-.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট, Prabartan | আপডেট: ১৮:৫৩, ২৪-০২-১৯

 

বিয়ে করতে যাচ্ছেন মডেল এবং নবাগত অভিনেত্রী সানাই মাহবুব সুপ্রভা। গতকাল শনিবার সকালে তার বাগদান হয়ে গেলো। নিজেই বিয়ের তথ্য নিশ্চিত করেছিলেন তিনি। সানাই জানিয়েছেন, তার পরিবারের আয়োজনেই এই বিয়েতে মত দিয়েছেন তিনি। তার হবু স্বামী একজন ডিভোর্সি। তার সঙ্গে বয়সের পার্থক্য ২২ বছর।

সেখানে বলেছিলেন তার স্বামী আওয়ামী লীগের একজন প্রভাবশালী নেতা। তিনি আওয়ামী লীগের সরকারের সাবেক মন্ত্রীও ছিলেন। সর্বশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

এই বিয়ের সেই খবর প্রকাশের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় শুরু হয়ে যায়। সবাই রীতিমত গোয়েন্দার ভূমিকায় কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন রহস্য উদঘাটন করতে। সানাইয়ের সঙ্গে বাগদান করা কে সেই সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান এমপি?

অনেকেই অনেক নাম তুলে আনছেন। হিসেব মিলিয়ে দেখছেন সানাইয়ের সঙ্গে ২২ বছরের ব্যবধান হতে পারে এমন সাবেক মন্ত্রীটি কে? কেউ আবার খুঁজছেন ডিভোর্সি সাবেক মন্ত্রী। যিনি বর্তমানে কোনো মন্ত্রণালয় পাননি।

এদিকে শনিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাত থেকে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে সানাইয়ের একটি ছবি। যেখানে তার সঙ্গে দেখা গেছে জাতীয় পার্টির সিনিয়র নেতা মসিউর রহমান রাঙ্গা। সানাইয়ের দেয়া তথ্যমতে রাঙ্গা সাবেক মন্ত্রী এবং বর্তমান এমপি। বয়সের ব্যবধান ২২ বছরের বেশি হলেও অনেকেই ইশরায় রাঙ্গাকেই সানাইয়ের হবু বর বলে দাবি করছেন।

তবে এই ছবিটি নিয়ে ভীষণ বিরক্ত ও বিব্রত সানাই। তিনি বললেন, ‘সাংবাদিকরা আমার বরের সম্পর্কে কিছু জানতে অনুরোধ করেছেন তাই আমি কিছু তথ্য দিয়েছি। কিন্তু এরপর দেশের মানুষ সাবেক মন্ত্রী হিসেবে যাকে পাচ্ছে তাকেই আমার স্বামী হিসেবে দাবি করছে। এটা খুবই বিরক্তির এবং অন্যায়।

রাঙ্গা ভাই একজন বরেণ্য প্রবীন রাজনীতিবিদ। তার সঙ্গে আমার তেমন পরিচয় নেই। একটি শো রুমের উদ্ধোধনকালে প্রথম ও শেষ দেখা হয়। তিনি মুরুব্বী মানুষ। তার সঙ্গে আমার ছবিটি নিয়ে বাজেবাজে কথা বলা হচ্ছে। একজন সম্মানিত মানুষকে বিব্রত করা হচ্ছে। আমি ও আমার পরিবারও বিব্রত। সবাইকে অনুরোধ করবো, এমনটা করবেন না।’

সানাই বলেন, ‘মানুষ মুখ ভরে শুধু মিডিয়ার মেয়েদের দোষ দিতে পারে। কিন্তু নিজেদের অনধিকার চর্চার প্রতি তাদের নিয়ন্ত্রণ নেই। একজন বিয়ে করছে, কাকে করছে সেটা প্রকাশ করা না করা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমি তো বলেছি যে পারিবারিক অনুমতি পেলেই আমি বরের নাম ও পরিচয় সব বলবো। এ নিয়ে এত বাড়াবাড়ির কিছু দেখি না।’

আর কোনো সাবেক মন্ত্রীকে নিয়ে ছবি ও গুজব না ছড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছেন সানাই।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top