আগে বাইপাস পরে দোকান: ইউএনও সাজিয়া আফরীন

1-7.jpg

তালা প্রতিনিধি, Prabartan | আপডেট: ২৩:১৪, ২৪-০২-১৯

তালা উপজেলা বাসীর বহুদিনের স্বপ্ন বাইপাস সড়ক। সেটি আজ বাঁধা হয়ে দাঁড়ালো অপরিকল্পিতভাবে ইজারা দেওয়ার কারণে। কিন্তু উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরীনের আশ্বাসে আলোর মুখ দেখতে শুরো করেছে তালাবাসী।




জানাযায়, উপজেলা সদর বাজারে একটি মাত্র (খুলনা-পাইকগাছা) সড়ক। ভিন্ন রাস্তা না থায় প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হয় জানজট। যার ফলে ঘটতে থাকে সড়ক দুর্ঘটনা। তালা বাসীর অনেকদিনের প্রত্যাশা একটি বাইপাস সড়ক। তাহলে রোধ হবে সড়ক দুর্ঘটনা, হারাতে হবে না অকালে আর কারো জীবন। এই নিয়ে স্থানীয় পত্র প্রত্রিকায় অনেক খবর আকারে প্রকাশ পাওয়ায় তৎকালীন জেলা প্রশাসক বাইপাস সড়ক করার পরিকল্পনা গ্রহন করেন । তারই ধারা বাহিকতায় তৈরী হয় ৩টি মিনি সুইচ গেট । হঠাৎ করে স্থানীয় নামধারী কিছু নেতা ও সরকারী কর্মকর্তাদের ইদ্ধনে বাইপাস সড়কের জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হয় দোকান করার জন্য । কিন্তু তালা বাসীর দাবি ‘পরিকল্পিত ইজারা দিয়ে বাইপাসের জায়গা উন্মুক্ত করতে হবে’।

স্লোগান দিয়ে তালা বাজারের ব্যবসায়ী মহল, সুধী সমাজ এবং সাধারণ মানুষ ফুসে উঠেলে তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিয়া আফরীন বলেন, আগে বাইপাসের জায়গা খালি করতে হবে পরে দোকান বরাদ্দ। তালার উন্নয়ন করতে হলে আগে বাইপাস রাস্তা করতে হবে। ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তাকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে সে ঘটনাস্থলে যাচ্ছে ।

উলেখ্য যে, ২৬১ কোটি ৫৪ লাখ ৮৩ হাজার টাকা ব্যয়ে কপোতাক্ষ নদ খননের পর জেগে ওঠে চরভরাটি জমি। সেই চরভরাটি জমিতে পরিকল্পনা করা হয় বাইপাস সড়কের । কিন্তু সেই চর ভরাটি জমিতে আজ ইজারা দিয়ে গড়ে তোলা হচ্ছে স্থাপনা। নির্মাণ হচ্ছে পাকা দোকানঘর আবার কেউ কেউ দখল করে গড়ে তুলেছে অবৈধ ইমারত।বাইপাস সড়কের দাবিতে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বাজারের দোকানদারবৃন্দ ।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top