মোমেন-পেইনের বৈঠক, ইন্দো-প্যাসিফিক ইস্যুতে আলোচনা

momen-01-20220221031646.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : জার্মানির মিউনিখ সিকিউরিটি কনফারেন্সে জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত সেশনের মাঝে সাইড লাইনে বৈঠক করেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন ও অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মরিস পেইন। বৈঠকে তারা ইন্দো-প্যাসিফিক ইস্যুতে মতবিনিময় করেছেন।রোববার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, জার্মানির মিউনিখে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে এ অঞ্চলে ক্রমবর্ধমান আগ্রহের পটভূমিতে ইন্দো-প্যাসিফিক নিয়ে মতবিনিময় করেন। তারা এ অঞ্চলের সবার সমৃদ্ধি ও নিরাপত্তার জন্য নৌ চলাচলের স্বাধীনতার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করেছেন।বৈঠকে দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন। তারা দিবসটি উপলক্ষে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে শুভেচ্ছা বার্তা বিনিময়ের কথা স্মরণ করেন।

ড. মোমেন অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে যৌথভাবে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ বাড়ানোর উপায় খোঁজার আহ্বান জানান। বিশেষ করে গত বছর ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট ফ্রেমওয়ার্ক অ্যারেঞ্জমেন্ট (টিফা) স্বাক্ষরের মাধ্যমে বাংলাদেশ ও অস্ট্রেলিয়ার বাণিজ্য ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা আরও বাড়ানো ও বৈচিত্র্য আনার সুযোগ রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।দুই মন্ত্রী বাংলাদেশ থেকে ওষুধ রপ্তানিকে কেন্দ্র করে একটি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলের সফর আয়োজনের সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করেন।

আরও পড়ুন : ফুলপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের জন্য পশম রপ্তানির বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন। উভয় পক্ষ অফশোর গ্যাস অনুসন্ধান এবং নবায়নযোগ্য শক্তি উভয় ক্ষেত্রেই সহযোগিতার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা করে।ড. মোমেন অস্ট্রেলিয়াকে নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতে কর্মসংস্থান বৃদ্ধির জন্য দক্ষতা প্রশিক্ষণ দেওয়ার অনুরোধ জানান। মোমেন অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশি প্রবাসীদের সুবিধার্থে দুই দেশের মধ্যে সরাসরি ফ্লাইট চালুর বিষয়ে পরামর্শ পুনর্ব্যক্ত করেন।

মোমেন রোহিঙ্গাদের মানবিক সংকটের টেকসই সমাধান খোঁজার জন্য অস্ট্রেলিয়াকে কাজ চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান। অস্ট্রেলিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ বিষয়ে তার দেশের স্থায়ী অঙ্গীকারের আশ্বাস দেন।এ সময় বৈঠকে জার্মানিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top