করোনাভাইরাস: রোগীদের সেবায় বিয়ে পিছিয়ে দেয়া সেই চিকিৎসকের মৃত্যু

image-280997-1582282330.jpg

চীনের প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সর্বশেষ শিকার হয়েছেন ২৯ বছর বয়সী এক চিকিৎসক।

উহান স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ বলছে, জিয়াংশিয়া জেলা ফার্স্ট পিপলস হাসপাতালের শ্বাসপ্রশ্বাস ও সংকটকালীন পরিচর্যা কেন্দ্রে কাজ করতেন পেং ইয়ানহুয়া নামের ওই চিকিৎসক। রোগীদের সরাসরি চিকিৎসা দেয়ার সময় তিনি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হন।

কাজের চাপে নিজের বিয়ে পিছিয়ে দিয়ে এর আগে খবরের শিরোনাম হয়েছিলেন তিনি। গত ২৫ জানুয়ারি তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল।

গত ৩০ জানুয়ারি দ্রুতই তার অবস্থার অবনতি ঘটে। পরে জরুরি চিকিৎসার জন্য তাকে জিনইয়ানতান হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়, বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৫০ মিনিটে পেং ইয়ানহুয়া মারা গেছেন।

এমন এক সময় তার এই মৃত্যুর খবর এসেছে, যখন দেশটিতে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। একদিন আগে যেখানে ৩৯৪ জন আক্রান্ত হন, পরের দিন শুক্রবার এক হাজার ১০৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

চীনের মূল ভূখণ্ডে এখন আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৪ হাজার ৬৮৫ জনে। আর নিহতের সংখ্যা দুই হাজার ২৩৬ জন। বৃহস্পতিবার দিন শেষে মারা গেছেন ১১৮ জন।

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশটির বিভিন্ন কারাগারে ৫০০ রোগী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। শুক্রবারে হুবাই প্রদেশের কারাগারে ২২০ জন আক্রান্ত হন। কিন্তু এসব আক্রান্তের ঘটনা কখন ঘটেছে, তা পরিষ্কার করেনি কর্তৃপক্ষ।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top