সঠিক ব্যায়াম ও আদর্শ খাবার তালিকার ওজন কমাতে সাহায্য করে

-ব্যায়াম-ও-আদর্শ-খাবার-তালিকার-ওজন-কমাতে-সাহায্য-.jpg

সঠিক ব্যায়াম ও আদর্শ খাবার তালিকার ওজন কমাতে সাহায্য

ডেস্ক রিপোর্ট, Prabartan | আপডেট: ১৬:৫১, ১৯-০২-১৯

 

শরীরের অ্যানার্জি ঠিক রেখে ওজন কমানো মোটেও সহজ নয়। এর জন্য যথেষ্ট ধৈর্য ধরতে হয়, কঠোর পরিশ্রম করতে হয় এবং চর্বি কমানোর ব্যাপারে হতে হয় দৃঢ়সংকল্প। সঠিক ব্যায়াম ও আদর্শ খাবার তালিকার সমন্বয়ে ওজন কমাতে প্রয়োজন পরিকল্পনা।

ওজন কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ফল। অস্বাস্থ্যকর স্নাকস এড়িয়ে ভিটামিন, ফাইবার এবং অন্যান্য পুষ্টি সমৃদ্ধ ফলকে খাবার তালিকায় গুরুত্ব দিতে হবে। যদিও সব ফলই স্বাস্থ্যের জন্য কোনো না কোনোভাবে উপকার করে। তবে ওজন হ্রাসের ক্ষেত্রে সঠিক ফল বাছাই গুরুত্বপূর্ণ।

ওজন কমাতে চেলে নিচের ফলগুলো খেতে পারেন:

১. আপেল:

আপেলেও ক্যালোরি অনেক কম। এতে রয়েছে উচ্চ মাত্রার ফাইবার কন্টেন্ট। ১১৬ ক্যালোরির এই ফলটি ওজন কমানোর জন্য ভালো। যদি আপনি প্রতিদিন খোসাসহ একটি আপেল খান তবে আপনার শরীর প্রায় ৪.৪ গ্রাম ফাইবার পাবে, যা দৈনিক গ্রহণ করা খাবারের এক-পঞ্চমাংশ। নিউট্রিশন জার্নাল-এ  প্রকাশিত গবেষণার ফল অনুযায়ী খাবার গ্রহণের আগে আপেল খেলে ওজন হ্রাসে উল্লেখযোগ্য ফল পাওয়া যায়।

২. বেরি ফল:

বেরি ফলও ওজন হ্রাসে যথেষ্ট সাহায্য করবে আপনাকে। এ জন্য স্ট্রবেরি বা ব্লুবেরি যে কোনো একটি খেতে পারেন। ৭৪ গ্রাম ব্লুবেরিগুলিতে ৪২ ক্যালোরি এবং ১৫২ গ্রাম স্ট্রবেরিতে রয়েছে ৫০ ক্যালোরি। ফলটি কলেস্টেরলের মাত্রা, রক্তচাপ এবং প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে।

৩. তরমুজ:

ভিটামিন এ, বি এবং সি-এর একটি উল্লেখযোগ্য উৎস তরমুজ। ১০০ গ্রাম তরমুজে রয়েছে ৩০ ক্যালোরি। ওজন হ্রাসে নিশ্চিন্তে খেতে পারেন এই ফল। এটি ৯০% পানি ধারণ করে যা আপনার ক্ষুধা মেটাবে এবং শরীরে পানির চাহিদা পূরণ করবে। এক গবেষণায় দেখা গেছে, তরমুজ শরীরের চর্বি কমায় এবং লিপিড প্রোফাইলকে উন্নত করে।

৪. বাতাবি লেবু:

এই ফলটি ভিটামিন সি, ফোলিক অ্যাসিড এবং পটাসিয়ামে সমৃদ্ধ। একটি বাতাবি লেবুর অর্ধেকে রয়েছে মাত্র ৩৯ ক্যালোরি। প্রতিদিন খাবার গ্রহণের আগে ফলটি অর্ধেক খেলে আপনার কলেস্টেরল মাত্রা কমে যাবে। এ ছাড়া এতে কমবে পেটের চর্বিও। যদি আপনার কোমরবন্ধের আকার কমাতে চান তবে নিয়মিত ফলটি খেতে পারেন।

 

৫. কিউই:

বাদামি রঙের এই ছোট ফলটিতে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি। ভিটামিন সি ও ই-এর একটি চমৎকার উৎস কিউই। এর রয়েছে অনেক স্বাস্থ্য সুবিধা। কিউই-এর কালো বীজ এসিওলিউবল ফাইবারের একটি চমৎকার উৎস যা হজম প্রক্রিয়ায় সহায়তা করে। এই ফল আপনার ক্ষুধা মেটাবে অন্যদিকে কমাবে ওজন।

 

৬. কমলা:

শরীর থেকে অতিরিক্ত চর্বি কমাতে কমলার জুড়ি নেই। এতে ক্যালোরি কম এবং রয়েছে উচ্চ মাত্রার ভিটামিন সি। একটি ছোট কমলায় থাকে ৪৫ ক্যালোরি। ভালো  ফল পেতে কমলার রস বের করে পান করার পরিবর্তে পুরো ফলটি খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৭. কলা:

বেশি সুগার ও ক্যালোরি কন্টেন্টের কারণে ওজন হ্রাসের ক্ষেত্রে অনেকে কলা এড়িয়ে চলেন। এটি সত্য যে কলা একটি ক্যালোরি সমৃদ্ধ ফল, তবে এতে অন্যান্য পুষ্টিও রয়েছে। একটি কলায় ১০৫ ক্যালোরি এবং তিন গ্রাম ডায়েটারি ফাইবার রয়েছে যা ওজন কমানোর ক্ষেত্রে চমৎকার ফল দেয়।

৮. পেয়ারা:

পেয়ারাও ফাইবার সমৃদ্ধ ফল। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য প্রতিরোধ করে। কম গ্লাইসেমিক থাকার কারণে ফলটি ওজন হ্রাসে এবং ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য আদর্শ। একটি কাঁচা পেয়ারায় রয়েছে ৩৭ ক্যালোরি। এতে রয়েছে সামান্য হজমযোগ্য কার্বোহাইড্রেট এবং শূন্য কোলেস্টেরল।

৯. পেঁপে:

পেঁপেয় রয়েছে পেপাইন। এটি একটি এনজাইম যা খাবার হজমে সাহায্য করে। ফলটি ফ্ল্যাভোনয়েড, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি-তে সমৃদ্ধ। খালি পেটে সকালে এই ফলটি খুব উপকারী। ১০০ গ্রাম পেঁপের মধ্যে রয়েছে মাত্র ৪৩ ক্যালোরি।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top