খুলনায় ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রম বিষয়ে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

19-2-19.jpg

 

ফাইলেরিয়াসিস নির্মূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রম আওতায় আগামী ২ থেকে ৭ মার্চ, ২০১৯ তারিখ দেশের সকল প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ক্ষুদে ডাক্তার কর্তৃক শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম শুরু হবে। শিক্ষার্থীদের মধ্য থেকেই ক্ষুদে ডাক্তার নির্বাচিত করা হবে।

মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে খুলনার স্কুল হেলথ ক্লিনিক সম্মেলনকক্ষে সিভিল সার্জন অফিসের আয়োজনে জেলা পর্যায়ের এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন খুলনার সিভিল সার্জন ডাঃ এএসএম আব্দুর রাজ্জাক।

সিভিল সার্জন বলেন, সরকার শিশুদের স্বাস্থ্যের উন্নয়নে কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। কৃমি মূলত পরজীবী। কৃমি শিশুদের মেধার বিকাশ ক্ষতিগ্রস্থ করে এবং শিশুরা মারাত্মক অপুষ্টিতে ভোগে। এর প্রতিরোধ করতে হলে শিশুদের কৃমি নাশক ট্যাবলেট খাওয়াতে হবে। শিশুদের পাশাপাশি পরিবারের অন্যান্য সকল সদস্যকেও কৃমি নাশক ট্যাবলেট খেতে হবে। তিনি এই কার্যক্রম সফল করতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

সভায় জানানো হয়, আগামী ২ থেকে ৭ মার্চ পর্যন্ত খুলনা জেলার নয়টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভাসহ এক হাজার সাতশ ১৮ টি প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৫ থেকে ১২ বছরের দুই লাখ ৩০ হাজার ৫৮ শিক্ষার্থীকে এবং চারশ ২৫ টি মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ১২ থেকে ১৬ বছরের এক লাখ ৬৩ হাজার নয়শ ৬৪ শিক্ষার্থীকে ক্ষুদে ডাক্তার কর্তৃক স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে বয়স অনুপাতে তাদের সঠিক ওজন, উচ্চতাসহ দৃষ্টিশক্তির ত্রæটি নির্ণয় করা হবে।

এ্যাডভোকেসি সভায় ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আতিয়ার রহমান শেখ, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, উপজেলা মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, স্বাস্থ্য পরিদর্শক এবং সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক অংশগ্রহণ করেন।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top