ভালবাসা দিবসে সবচেয়ে বেশি ব্যয় এশিয়ার তিন দেশে

valentine20190213192115.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট, prabartan | প্রকাশিত : ১৯:৩৪, ১৭-০২-১৯

 

এশিয়ানরা রোমান্টিক নয় এই আপ্তবাক্যকে ব্যর্থ প্রমাণ করেছে ‘মাস্টারকার্ড লাভ ইনডেক্স’ ২০১৯। মাস্টারকার্ডের এই লাভ ইনডেক্স জরিপে দেখা যাচ্ছে যে, বিশ্ব ভালবাসা দিবসে এশিয়ান দেশগুলোতে ব্যয়ের হার ২০১৬ সালের তুলনায় ৩৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। আর দিবসটিতে সামগ্রিক লেনদেন বেড়েছে ৩৭ শতাংশ। যেখানে যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ এই দিনটিতে ব্যয়ের হার শতকরা ৮ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে।

মাস্টারকার্ড লাভ ইনডেক্স তাদের জরিপে ৩টি বিষয়কে ভিত্তি ধরে কাজ করেছে। জরিপে ২০১৬ সাল থেকে ২০১৯ সালের ১১-১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ক্রেডিট, ডেবিট এবং প্রিপেইড কার্ড ট্রানজেকশনে মোট লেনদেনকৃত অর্থের পরিমাণকে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। ভালবাসা দিবসের ব্যয় হিসেবে রেস্টুরেন্ট, হোটেল, যাতায়াত, বই, অলংকার এবং স্টেশনারি সামগ্রী ক্রয়ে লেনদেনকৃত অর্থকে বুঝানো হয়েছে।

ভালবাসা দিবসে ব্যয়ের শীর্ষে থাকা ৩ এশিয়ান দেশ হচ্ছে চীন (৮৮%), জাপান (৬৮%) ও হংকং (৬২%)। মাস্টারকার্ড লাভ ইনডেক্স জরিপে উঠে এসেছে চমকপ্রদ কিছু তথ্য। এতে বলা হয়েছে, শতকরা ২৯ ভাগ এশিয়ান ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালবাসা দিবসের কেনাকাটা করেন। অন্যদিকে ৪০% চীনা নাগরিক ১২ ফেব্রুয়ারি উপহার কেনার পর্বটি সেরে ফেলেন। ভালবাসা দিবসে ৮৬% এশিয়ান অনলাইন কেনাকাটার চেয়ে সরাসরি কেনায় বেশি আগ্রহী। ২০১৮ সালে এশিয়ানরা ভালবাসা দিবসে রেস্টুরেন্টে তাদের মোট ব্যয়ের ৬৮% খরচ করেছেন। বিগত বছরগুলোতে রেস্টুরেন্টে ব্যয়ের হার শতকরা ৪১ ভাগ বৃদ্ধি পেয়েছে। রেস্টুরেন্টে ব্যয় বৃদ্ধিতে শীর্ষ দেশ ভারত। দেশটিতে ভালবাসা দিবসে রেস্টুরেন্টে ব্যয় বিগত ৩ বছরে ৫৪% বেড়েছে।

ভালবাসা দিবস নিয়ে উন্মাদনা এশিয়ান দেশগুলোতে প্রতি বছরই বাড়ছে। দিবসটিতে এশিয়ান দেশগুলোতে হোটেল ব্যয় বিগত বছরগুলোতে বৃদ্ধি পেয়েছে। মাস্টারকার্ড লাভ ইনডেক্স জরিপে দেখা যাচ্ছে যে, হোটেল আবাসন সংক্রান্ত ব্যয় শতকরা ২৭ ভাগ বেড়েছে। যেখানে চীন ও ভারতে ভালবাসা দিবসে হোটেল আবাসন ব্যয় যথাক্রমে ১৪২% ও ৭৩% বৃদ্ধি পেয়েছে। এর পাশাপাশি যাতায়াত ও ভ্রমণ ব্যয়ও বৃদ্ধি পেয়েছে। ফিলিপিন্সে ২০১৮ সালে এ সংক্রান্ত ব্যয় ১৬৪% পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। অপরদিকে অস্ট্রেলিয়াতে ভালবাসা দিবসে যাতায়াত ও ভ্রমণ ব্যয় ৬৬% হ্রাস পেয়েছে।

এশিয়াজুড়ে ভালবাসা দিবসে ফুল, জুয়েলারি, মূল্যবান প্রসাধনী ও স্যুভেনির ইত্যাদি কেনায় ব্যয় বৃদ্ধি প্রমাণ করে যে, দিবসটিকে এশিয়ানরা আপন করে নিয়েছে। দেখা যাচ্ছে যে ফুল কেনাকাটায় ব্যয় বেড়েছে ৮৯% এবং অলংকারে ৩২%।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top