যবিপ্রবিতে নানা আয়োজনে বসন্ত বরণ

bfdhvbgkjdf.jpg

যবিপ্রবিতে নানা আয়োজনে বসন্ত বরণ

যশোর অফিস, Prabartan | আপডেট: ২৩:৪০, ১৩-০২-১৯

 

গান ও নৃত্য পরিবেশন এবং কবিতা আবৃত্তিসহ নানা আয়োজনে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) ঋতুরাজ বসন্তের প্রথম দিনকে বরণ করে নেওয়া হয়েছে। মেয়েরা বাসন্তী শাড়ি আর ছেলেরা পাঞ্জাবি পরে মেতে উঠেন বসন্ত উৎসবে।

বসন্ত বরণ উপলক্ষে বিশ‌্ববিদ্যালয়ের গ্যালারিতে ‘বসন্ত বয়ে আনুক সুস্থ আনন্দ’ শীর্ষক বসন্ত উৎসবের আয়োজন করে যবিপ্রবির ইংরেজি বিভাগ। অনুষ্ঠানে বসন্তের জনপ্রিয় গানের সঙ্গে দলীয় ও একক নৃত্য পরিবেশন করেন ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী অতসী, মীমসহ আরও অনেকে। শিক্ষার্থীদের সুরেলা কণ্ঠের গান আর ভরাট গলায় কবিতা আবৃত্তিতে মেতে থাকেন দর্শকেরা।

সবচেয়ে মজার আয়োজন ছিল ইংরেজি বিভাগের তৃতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বাংলা সাহিত্যের কালজয়ী ও জনপ্রিয় কয়েকটি উপন্যাসের চরিত্রে চরিত্রায়ন। রবীনন্দ্রনাথের শেষের কবিতা উপন্যাসের অমিত-লাবণ্য চরিত্র, জহির রায়হানের হাজার বছর ধরে উপন্যাসের টুনি-মন্তু চরিত্র, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের দেবদাস উপন্যাসের দেবদাস-পার্বতী চরিত্র, মানিক বন্দোপাধ্যায়ের পুতুল নাচের ইতিকথা উপন্যাসের শশী-কুসুম চরিত্র, হূমায়ুন আহমেদের হিমু উপন্যাসের হিমু-রূপা চরিত্র, শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের শেখর-ললিতা চরিত্র, মানিক বন্দোপাধ্যায়ের পদ্মা নদীর মাঝি উপন্যাসের কুবের-কপিলা চরিত্র, রবীন্দ্রনাথের চোখের বালি উপন্যাসের বিনোদিনী-মহন্দ্রে চরিত্রে অভিনয় দর্শকদের বাহ্বা কুড়ায়। সর্বশেষ ‘বসন্ত এসে গেছে…’ গানে দলীয় নৃত্য পরিবেশনের মাধ্যমে ইংরেজি বিভাগের বসন্ত উৎসবের পরিসমাপ্তি ঘটে।

অনুষ্ঠানে কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শেখ মিজানুর রহমান, ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো: মনিবুর রহমান, ফারজানা নাসরীন, আব্দুল্লাহ আল মামুন, তন্ময় মজুমদার, প্রভাষক মো: আল ওয়ালিদ, ফারহানা ইয়াসমিন, ফারিহা-তুয যাহরা চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে বসন্তের হাওয়ায় ঊষ্ণ হাওয়ায় যবিপ্রবি ক্যাম্পাসের প্রধান সড়কের দুই পাশে ফুটেছে পিটুনিয়া, এনকা, চন্দ্রমল্লিকা, কসমস, পেনজি, স্টার, ড্রপ স্টার, সূর্যমুখি, কেলেনডোলা, সিলোশিয়া, ভারবিনা, ডালিয়া, ডাইনথাস, জিনিয়াসহ হরেক রকমের ফুল। হরেক রকমের বাহারি ফুল যেন ক্যাম্পাসে ফাগুনের আগুন লাগা সৌন্দর্য সৃষ্টি করেছে। প্রস্ফুটিত এসব ফুলে সুশোভিত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস এখন যেন শিল্পীর তুলিতে আঁকা নয়ন জুড়ানো অপরূপ কোনো ছবি।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top