জঙ্গিবাদ দমনে আনসার-ভিডিপিকে জোরালো ভূমিকা পালনের আহ্বান

chgvghdv.jpg

জঙ্গিবাদ দমনে আনসার-ভিডিপিকে জোরালো ভূমিকা পালনের আহ্বান

ডেস্ক রিপোর্ট, Prabartan | প্রকাশিত: ১৭:০৪, পিএম, ১২-২-১৯

 

জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস দমনে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষাবাহিনীকে (ভিডিপি) আরো জোরালো ভূমিকা পালন করতে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার সকালে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর (ভিডিপি) ৩৯তম জাতীয় সমাবেশে যোগ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের ৪১টি ব্যাটালিয়নে পার্বত্য ও সমতলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করছে আনসার বাহিনী। নিরাপত্তার দায়িত্ব দক্ষতার সাথে পালন করছে এ বাহিনী। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪০ হাজার ১৮৩ টি ভোটকেন্দ্রে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দায়িত্ব পালন করেছে তারা। তাদের অংশগ্রহণে ভোট সুষ্ঠু ও সুন্দর হয়েছে। এ দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ৫ জন আনসার বাহিনীর সদস্য প্রাণ হারিয়েছেন।

এ বাহিনীর উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছে সরকার উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ৯৬ সালে সরকারে এসে আমরা নানা পদক্ষেপ নিয়েছি, ৯৮ সালে তাদের জাতীয় পতাকা দিয়েছি। বিসিএস ক্যাডারে উন্নিত করা হয়েছে। জননিরাপত্তা ও শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখায় আনসার বাহিনীর যেকোনে সমস্যা সমাধানে আওয়ামী লীগ সরকার মনোযোগী। আনসার ভিডিপি ব্যাংক তৈরি করে দিয়েছি আর্থিক স্বচ্ছলতার জন্য।

এছাড়া ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল গঠিত অস্থায়ী সরকারকে প্রথম গার্ড অব অনার দেয়ায় আনসার বাহিনীকে ধন্যবাদ জানান শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের শান্তি ও মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করাই তার সরকারের লক্ষ্য। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই স্বপ্নই দেখতেন। আর তা বাস্তবায়নে কাজ করছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার।

এসময় বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে গড়ে তুলতে সকলের সহযোগিতা চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর আগে, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমিতে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী। সমাবেশে পৌঁছে প্রধান অতিথি হিসেবে কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে সালাম গ্রহণ করেন তিনি। কুচকাওয়াজ শেষে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা সদস্যদের উদ্দেশে ভাষণ দেন। এছাড়া দক্ষতা এবং কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য আনসার-ভিডিপি সদস্যদের পুরস্কৃত করেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রসঙ্গত, ১৯৮০ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশ আনসার বাহিনী গঠন করা হয়। এরপর থেকে প্রতি বছর এই দিনে বাহিনীর জাতীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top