‘স্ট্যাচু অব লিবার্টি’ সম্পর্কিত অজানা তথ্য

cbvcbjfdbg.jpg

‘স্ট্যাচু অব লিবার্টি’ সম্পর্কিত অজানা তথ্য

ডেস্ক রিপোর্ট, prabartan | প্রকাশিত : ১৮:০০, ১১-০২-১৯

 

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক হারবারের একটি দৃশ্য সকলেরই অতি পরিচিত। বিশাল এক মশাল হাতে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন রোমান দেবী লিবার্তাস, যে ভাস্কর্যটি স্ট্যাচু অব লিবার্টি নামেই পরিচিত। কয়েক দশক আগ পর্যন্তও এটি এলিস আইল্যান্ড হয়ে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশকারী অভিবাসীদের জন্য আশার একটি প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়ে থাকলেও এখন তা মার্কিন মুলুকের সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়ে আছে। এই দৈত্যাকার ভাস্কর্যটি ঘিরে রয়েছে দারুণ এক ইতিহাস, সঙ্গে রয়েছে অজানা অনেক তথ্য যা হয়তো অনেকেরই অজানা। আসুন জেনে নেই সেগুলোর কয়েকটি সম্পর্কে-

১। স্ট্যাচু অফ লিবার্টির মোট ওজন ২২৫ টন বা ৪৫ হাজার পাউন্ড!

২। দেবী লিবার্তাস এর ভাস্কর্যটি আকারে এতই বড় যে, তার পায়ের মাপে জুতা কিনতে হলে তার সাইজ লাগবে ৮৭৯!

৩। স্ট্যাচু অফ লিবার্টিকে লাইট হাউজ হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছিলো প্রায় ১৬ বছরের মতো। ২৪ মাইল দূর থেকেও সেই লাইট হাউজের আলো দেখা যেত!

৪। স্ট্যাচু অফ লিবার্টির উচ্চতা ৩০৫ ফুট ১ ইঞ্চি, এটি উত্তর আমেরিকার সবচেয়ে বড় ভাস্কর্যের গৌরব দখল করে আছে।

৫। বাতাসের বেগ বেশি হলে এ স্ট্যাচুটি ৩ ইঞ্চি ও এর মশালটি ৬ ইঞ্চি পর্যন্ত দুলতে পারে।

৬। এই বিশাল ভাস্কর্যটির ডিজাইন করা হয়েছে রোমান সভ্যতার ভাস্কর্যসমূহের আদলে।

৭। স্ট্যাচু অফ লিবার্টির মাথায় উঠতে আপনাকে ৩৫৪ টি সিঁড়ির ধাপ অতিক্রম করতে হবে। একেবারে উপরে দেবীর মুকুটে পৌঁছে পাওয়া যাবে এক এক করে ২৫ টি জানালা, যা দিয়ে চারপাশটা খুব ভালোভাবে দেখে নিতে পারবেন।

৭। ১৮৮৬ সালের ২৮ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্রান্সের কাছ থেকে স্ট্যাচুটি উপহার হিসেবে গ্রহণ করেন। তাই প্রতি বছর ২৮শে অক্টোবর স্ট্যাচু অফ লিবার্টির জন্মদিন পালন করা হয়।

৮। স্ট্যাচু অফ লিবার্টির দেবীর মুকুটে রয়েছে মোট সাতটি স্পাইক, যা দিয়ে সাত মহাদেশকে নির্দেশ করা হয়েছে।

৯। স্ট্যাচু অফ লিবার্টির কাঠামোর প্রধান উপকরণ হলো তামা। তাই বর্তমানে অতিরিক্ত জারণের কারণে স্ট্যাচুটি সবুজ বর্ণ ধারণ করেছে। এর চারপাশ ঘিরে থাকা সামুদ্রিক জলীয় বাষ্পের কারণে এ রাসায়নিক বিক্রিয়া সংঘটিত হয়েছে বলে ধারণা করা হয়।

 

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top