খুলনা জেলা প্রশাসনের কোচিং বিরোধী অভিযান

50789999_366305723951809_8824687982456864768_o.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট, Prabartan | প্রকাশিত: ১:৫৬ পিএম, ৩১-০১-১৯

 

শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রণীত কোচিং বাণিজ্য বন্ধ নীতিমালার বাস্তবায়নে খুলনায় কোচিং বিরোধী অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের ২৪ জানুয়ারির অফিস স্মারকে ২৭ জানুয়ারি’১৯  থেকে ২৭ ফেব্রুয়ারি’১৯ পর্যন্ত সকল কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশনা জারী হয়। উক্ত নির্দেশনা অনুযায়ী আসন্ন এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য খুলনা জেলা প্রশাসন ঝাটিকা অভিজান পরিচালনা করছে।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, ২৭ জানুয়ারি হতে জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞ এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটগণ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ কোচিং সেন্টারে অভিযান শুরু করে। অভিযান পরিচালনাকালে কয়েকটি কোচিং সেন্টার খোলা অবস্থায় পাওয়া যায়। সেগুলো তাৎক্ষনিক বন্ধ করার ব্যবস্থা করা হয়।

বরিবার (২৭ জানুয়ারি) সাউথ সেন্ট্রাল রোড ও আহসান আহমেদ রোডে অভিযানের একটি কোচিং এবং আস্থা কিন্ডারগার্টেন ও পরশমণি শিশু শিক্ষালয় নামের দুটি কোচিং সেন্টার খোলা পাওয়া যায় এবং সেগুলো তাৎক্ষণিক বন্ধ করা হয়। কোচিং পরিচালনার জন্য শেরে বাংলা রোডে আস্থা কিন্ডারগার্টেন ও সোনারতরী প্রি ক্যাডেট স্কুলের কর্তৃপক্ষের প্রত্যেককে ১০০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়। ফুলতলায় একটি কোচিং সেন্টার খোলা পাওয়ায় দণ্ডবিধি’র ১৮৮ ধারায় ২০০ টাকা জরিমানা করা হয়। ডুমুরিয়া উপজেলা স্টাডি কোচিং সেন্টার এর মালিক মোঃ সালেহ আহমেদকে ১০ (দশ) হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়াও অন্যান্য উপজেলার কোচিং সেন্টার বন্ধ রয়েছে মর্মে উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণ নিশ্চিত করেছেন।

অভিযান পরবর্তী সময়ে এ পর্যন্ত মহানগরী ও সমগ্র জেলায় সকল প্রকার কোচিং বন্ধ রয়েছে এবং অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে, সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মহানগরীর বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বছরের পর বছর ধরে শিক্ষার্থীদের জিম্মি করে কোচিং বাণিজ্য চালিয়ে আসছেন। শিক্ষকদের গড়ে তোলা এসব কোচিং সেন্টারে ছেলে মেয়েদের না পড়ালে ক্লাসে ফেল করিয়ে দেওয়ার অভিযোগ অভিভাবকদের।

 

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৬, ৩১ জানুয়ারি ২০১৯

ডেস্ক/এএস

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top