সাবেক ওসির দেড় কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ

receive-2001291111.jpg

নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবির) সাবেক ওসি আতাউর রহমান ভূঞার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত এক কোটি ৪৫ লাখ ৯৬৬ টাকার সম্পত্তির সন্ধান পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদক চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিচালক কার্যালয় ও নোয়াখালী কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, নোয়াখালী ডিবির সাবেক ওসি মো. আতাউর রহমান ভূঞা ১৯৮৪ সালে কনস্টেবল হিসেবে পুলিশে যোগদান করেন। ১৯৮৯ সালে এএসআই, ১৯৯৬ সালে এসআই ও ২০১০ সালে পুলিশ পরিদর্শক পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত হন। তার চাকরি জীবনের ৩৪ বছরে মোট ৫৩ লাখ টাকার আয়ের তথ্য পেয়েছে দুদক। কিন্তু তার এ আয়ের বিপরীতে সে খরচ করেছে স্থাবর সম্পদ ও অস্থাবর সম্পদ এক কোটি ৯৮ লাখ ৬১ হাজার ৮২৯ টাকা। হিসেব করে দেখা যায় তার বৈধ আয় থেকে অর্জিত সম্পদের পরিমাণ (স্থাবর-অস্থাবর) এক কোটি ৪৫ লাখ ৩৫ হাজার ৯৬৬ টাকা বেশি। যা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত অবৈধভাবে অর্জন করেছে বলে দুদকের অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা তার অনুসন্ধান রিপোর্টে উল্লেখ করেছেন।

তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের এক সহকারী পরিচালক (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) জানান, দুর্নীতি দমন কমিশন প্রধান কার্যালয়ের স্মারক নং- দুদক/১৫৪-২০১৭/অনু ও তদন্ত-২/নোয়াখালী/৩৮৮২০, তারিখ ২৮-১১-১৭ইং ও দুর্নীতি দমন কমিশন, সাজেকা, নোয়াখালীর/আর নং-০১/১৮ তারিখ ১৪-১-১৮ইং সূত্রের আলোকে তিনি অনুসন্ধান করে নোয়াখালীর ডিবির সাবেক ওসির বিরুদ্ধের প্রতিবেদন দেন। ডিবির এ কর্মকর্তা তার চাকরিজীবনে আয় বহির্ভূতভাবে এক কোটি ৪৫ লাখ ৩৫ হাজার ৯৬৬ টাকা দুর্নীতির মাধ্যমে উপার্জন করেছেন। এর মধ্যে ঢাকার ডেমরা থানার ডগাইর মৌজার ৪.৭৫ শতাংশ ভূমি ক্রয় করে তার উপর বাড়ি নির্মাণ, কমলাপুর স্টেডিয়ামে তার স্ত্রীর নামে দোকান, ডিসিসি ঢাকা মেডিকেল রোড সাইট মার্কেটে স্ত্রীর নামে দোকান, পশ্চিম রাজাবাজারে ১৮৮০ বর্গফুটের ফ্ল্যাট এবং ঢাকা এশিয়া ব্যাংকে নিজ নামে ২১ লাখ ১০ হাজার টাকা ও ইসলামী ব্যাংক লি:, ভিআইপি রোড শাখায় স্ত্রী সেলিনা রহমানের নামে ৮টি একাউন্টে ১৯ লাখ ২৪ হাজার ৫৩৬ টাকা রয়েছে (ব্যাংকের এ হিসাবগুলি দুদক লেনদেন বন্ধ করে রেখেছে)।

নোয়াখালী দুদকের উপ-পরিচালক সুবেল আহম্মেদ জানান, তদন্ত কর্মকর্তা মশিউর রহমান তার অনুসন্ধানের মতামতের সঙ্গে একমত পোষণ করে দুদকের উপ-পরিচালক ডিবির সাবেক ওসি আতাউর রহমান ভূঁঞা ও তার স্ত্রী সেলিনা রহমানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশন আইন ২০০৪ এর ২৬(১) ধারায় সম্পদ বিবরণীর নোটিশ জারীর সুপারিশ দিয়ে ১৮৭ নং স্মারকে কমিশনে প্রেরণ করেছেন এবং ডিবির ওসি আতাউর রহমান ভূঁঞাকে দুদকের নজরধারিতে রেখেছেন।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: নিরাপত্তা সতর্কতা!!!