ভারতে লাফিয়ে বাড়ল করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যু, ঊর্ধ্বমুখী পজিটিভিটি রেটও

639323_118.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : চলতি মাসের শেষেই সংক্রমণের শিখর ছুঁতে পারে করোনা সংক্রমণ। এমনই আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। তবে এই উৎকণ্ঠার মধ্যেই মঙ্গলবার সামান্য স্বস্তি দিয়েছিল করোনার নিম্নমুখী গ্রাফ। কিন্তু সেই স্বস্তি দীর্ঘস্থায়ী হলো না।ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় ফের লাফিয়ে বাড়ল কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা। লাগাতার ঊর্ধ্বমুখী মৃত্যুর হারও নতুন করে চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়াচ্ছে।

বুধবার স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৮৫ হাজার ৯১৪ জন। ঊর্ধ্বমুখী পজিটিভিটি রেটও। বর্তমানে দেশে করোনা পজিটিভের হার ১৬.১৬ শতাংশ। সংক্রমণের কথা মাথায় রেখেই রাজধানী দিল্লিতে আজ সাধারণতন্ত্র দিবস উদযাপিত হচ্ছে। মেনে চলা হচ্ছে সমস্ত কোভিডবিধি। অনুষ্ঠানে বিস্তর কাটছাঁটও করা হয়েছে।

এদিকে মারণ ভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে প্রাণ হারিয়েছেন ৬৬৫ জন। গতকাল যে সংখ্যাটা ছিল ৬১৪। প্রতিদিন যেভাবে বিভিন্ন রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে, তা রীতিমতো উদ্বেগজনক।

আরও পড়ুন :বান্দরবানে আক্রান্তের সংখ্যা অর্ধশত ছাড়া

এখনো পর্যন্ত করোনায় ভারতে মোট মৃতের সংখ্যা ৪ লাখ ৯১ হাজার ১২৭ জন। তবে এই উদ্বেগের মাঝেই সাময়িক স্বস্তি দিল নিম্নমুখী অ্যাকটিভ কেস। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রিপোর্ট অনুযায়ী, বর্তমানে দেশে করোনায় চিকিৎসাধীন রোগী ২২ লাখ ২৩ হাজার ১৮ জন।
পরিসংখ্যান বলছে, এখনো পর্যন্ত দেশে ৩ কোটি ৭৩ লাখ ৭০ হাজার ৯৭১ জন করোনা থেকে মুক্ত হয়েছেন। যার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনামুক্ত হয়েছেন ২ লাখ ৯৯ হাজার ৭৩ জন। সুস্থতার হার ৯৩.২৩ শতাংশ।

ভারতের স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দেয়া তথ্য জানাচ্ছে, এখনো পর্যন্ত দেশে প্রায় ১৬৩ কোটির বেশি ডোজ করোনার টিকা দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে গতকালই ভ্যাকসিন পেয়েছেন ৫৯ লাখের বেশি। টিকাকরণের পাশাপাশি আগের মতোই চলছে টেস্টিংও। গতকাল যেমন ১৭ লাখ ৬৯ হাজার ৭৪৫ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top