ছাত্রীর সাথে অশালীন ফোনালাপ : পদ হারালেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক

202502thumbnail_Screenshot_20220125-195330__01-1-1.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট: গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) কৃষি অনুষদের সভাপতি এইচ এম আনিসুজ্জামানকে বিভাগীয় সভাপতির পদ থেকে অব্যাহতি প্রদান করা হয়েছে। বর্তমানে কৃষি বিভাগের ডিন মো. মোজাহার আলী সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার ড. মোরাদ হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কৃষি বিভাগের ডিন অধ্যাপক ড. মো. মোজাহার আলীকে বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০০১-এর ২৫(৩) ধারা মোতাবেক কৃষি বিভাগের চেয়ারম্যানের অতিরিক্ত দায়িত্ব অর্পণ করা হলো।

তিনি বিভাগের বর্তমান চেয়ারম্যান এইচ এম আনিসুজ্জামানের স্থলাভিষিক্ত হবেন। এ আদেশ পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।
এ বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার মো. মোরাদ হোসেন কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে ও সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে বিভাগীয় প্রধান থেকে তাঁকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। ‘

গত বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) কৃষি বিভাগের এক শিক্ষার্থীর সঙ্গে এইচ এম আনিসুজ্জামানের ফোনালাপ ফাঁস হয়। সেখানে তিনি অশালীন ভাষায় কথাবার্তা বলেন। এরই প্রেক্ষিতে রবিবার (২৩ জানুয়ারি) বিভাগীয় প্রধানের অব্যাহতি চেয়ে প্রশাসন বরাবর অভিযোগপত্র জমা দেন বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

অভিযোগপত্রে এইচ এম আনিসুজ্জামানের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে বিগত বিভিন্ন একাডেমিক কার্যক্রমে উল্লেখযোগ্যভাবে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস, পরীক্ষার নম্বরপত্র গরমিল করা, উত্তরপত্রে নিজের ইচ্ছামাফিক নম্বর বসিয়ে দেওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগ করা হয়।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top