৪ হাসপাতাল ঘুরেও বাঁচানো গেলো না গীতিকার-সুরকার স্বপ্নীলকে

shopnil-cover-20220116120140.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : গুণী গীতিকার ও সুরকার এফএইচ সরকার স্বপ্নীল আর নেই। গতকাল শনিবার (১৫ জানুয়ারি) রাত ১১টার দিকে জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে তার মৃত্যু হয়েছে। স্বপ্নীলের ভাগ্নে রাজীব খবরটি নিশ্চিত করেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।

রাজীব জানান, গত এক মাস ধরে যাত্রাবাড়িতে বোনের বাসায় ছিলেন গীতিকার-সুরকার স্বপ্নীল। এদিন সন্ধ্যায় হঠাৎ তিনি অসুস্থবোধ করেন। এরপর তাকে প্রথমে ইসলামিয়া হাসপাতাল, পরে হলি ফ্যামিলি এবং জাতীয় হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতাল ঘুরে নিয়ে যাওয়া হয় জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে। সেখানে চিকিৎকরা তাকে বাঁচানোর জন্য স্যালাইন ও ইনজেকশন দেন। কিন্তু এর কিছুক্ষণ পরই রাত ১১টায় তিনি মারা যান।

আরও পড়ুন : রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৫৫

বাপ্পা মজুমদার, সন্দীপন, হৈমন্তী রক্ষিত মান, নদী’সহ আরও অনেক শিল্পীর জন্যই গান লিখেছেন স্বপ্নীল। দিয়েছেন সুরও। নিজেও গাইতেন। তবে তিনি বেশি আলোচনায় আসেন ২০০৬ সালে প্রকাশিত সন্দীপন দাসের একক অ্যালবাম ‘আয় প্রাণের উৎসবে’র সবগুলো গানের কথা ও সুর করে। যার সংগীতায়োজন করেছিলেন বাপ্পা মজুমদার।

স্বপ্নীলের মৃত্যুতে শোকাহত সন্দীপন বলেন, ‘স্বপ্নীলের সঙ্গে আমার বন্ধুর সম্পর্ক ছিল। তার বেড়ে ওঠা চট্টগ্রামের কাপ্তাইতে। সেখানে আমরা ওস্তাদ মেহের কান্তি লালের কাছে গান শিখতাম। ঢাকায় এসেও দুজন একসঙ্গে কাজ করেছি। আমাদের অনেক অনেক স্মৃতি। খুব খারাপ লাগছে তার মৃত্যুর কথা শুনে।’

উল্লেখ্য, স্বপ্নীলের গ্রামের বাড়ি কুমিল্লায়। তবে বেড়ে উঠেছেন চট্টগ্রামে। সেখান থেকে গানের টানেই ১৯৮৮-৮৯ সালের দিকে ঢাকায় চলে আসেন তিনি। সবশেষ স্বপ্নীলের কথায় প্রশংসিত হয় বাপ্পা মজুমদার ও নদীর গাওয়া ‘জলছায়া’ গানটি।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top