করোনার নতুন দুই চিকিৎসার অনুমোদন দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

113416_bangladesh_pratidin_coronavirus.jpg

ডেস্ক রিপোর্ট : বিশ্বজুড়ে লাফিয়ে বাড়ছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ। বিশেষ করে ইউরোপ-আমেরিকায় সুনামি গতিতে বাড়ছে ভাইরাসটির নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন সংক্রমণ। আগামী ছয় থেকে আট সপ্তাহ তথা মার্চের মাসের মধ্যে ইউরোপের অর্ধেক অঞ্চল করোনা সংক্রমিত হবে। ইতোমধ্যে ইউরোপের দেশগুলো হাসপাতালে ব্যাপক হারে বাড়তে শুরু করেছে করোনাক্রান্ত নতুন রোগীর সংখ্যা।

এমতাবস্থায় করোনার চিকিৎসায় নতুন দুটি চিকিৎসার অনুমোদন দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে ডব্লিউএইচও-এর বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, করোনায় গুরুতর অসুস্থ রোগীদের ‘কর্টিকসটারয়েডস’ নামে একটি ওষুধের সঙ্গে আর্থ্রাইটিসের ওষুধ ‘বারিসিটিনিব’ প্রয়োগ করলে ভেন্টিলেশনে নেওয়ার ঝুঁকি কমে যায়। মৃত্যুর ঝুঁকিও কমে।

আরও পড়ুন : গাজীপুরের বিনিরাইলে জমজমাট মাছের মেলা 

যারা বয়স্ক, রোগ প্রতিরোধক্ষমতা কম কিংবা ডায়াবেটিসের মতো কোনও রোগে ভুগছেন, তাদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে যাওয়ার ঝুঁকি কমাতে বিশেষজ্ঞরা সিনথেটিক অ্যান্টিবডি চিকিৎসাপদ্ধতি ‘সট্রোভিম্যাবের’ সুপারিশ করেছেন।

তবে করোনা সংক্রমিত যাদের হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়ার ঝুঁকি কম, তাদের ক্ষেত্রে ‘সট্রোভিম্যাব’ প্রয়োগের খুব বেশি প্রয়োজন আছে বলে মনে করা হয় না।

এদিক, ওমিক্রনের মতো করোনার নতুন ধরনের বিরুদ্ধে নতুন এই দুই চিকিৎসাপদ্ধতি কতটা কার্যকর, তা এখনও অনিশ্চিত বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

ফেসবুকের সাথে কমেন্ট করুন

Share this post

PinIt

Leave a Reply

Your email address will not be published.

scroll to top